নৌযান ধর্মঘট, সদরঘাট থেকে ছাড়ছে না লঞ্চ, দুর্ভোগে যাত্রীরা - বিডিসি ক্রাইম বার্তা
ArabicBengaliEnglishHindi

BD IT HOST

নৌযান ধর্মঘট, সদরঘাট থেকে ছাড়ছে না লঞ্চ, দুর্ভোগে যাত্রীরা


bdccrimebarta প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৭, ২০২২, ১২:০২ অপরাহ্ন / ৪০
নৌযান ধর্মঘট, সদরঘাট থেকে ছাড়ছে না লঞ্চ, দুর্ভোগে যাত্রীরা

কাজল হোসেন, স্টাফ রিপোর্টারঃ নৌযান শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের ডাকে সারা দেশে যাত্রীবাহী নৌযান ধর্মঘট শুরু হয়েছে। এতে ঢাকা নদীবন্দরসহ সারা দেশে সব ধরনের যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ আছে। ১০ দফা দাবিতে গতকাল শনিবার দিবাগত রাত ১২ টা থেকে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদ এ ধর্মঘটের ডাক দেয়। ধর্মঘটের কারণে আজ রোববার সকালে ঢাকার সদরঘাট টার্মিনাল থেকে কোনো যাত্রীবাহী নৌযান ছেড়ে যায়নি। এর আগে আজ ভোররাতে দক্ষিণাঞ্চল থেকে আসা যাত্রীবাহী লঞ্চগুলো সদরঘাট টার্মিনালে যাত্রীদের নামিয়ে দিয়ে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সদরঘাট টার্মিনাল এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, অন্য দিনের তুলনায় ঘাট এলাকা অনেকটা ফাঁকা। তবে নৌযান ধর্মঘটের ব্যাপারে অনেক যাত্রী কিছু জানেন না। এসব যাত্রীরা ঘাটে এসে হতাশ হয়ে ফিরে যাচ্ছেন। আট বছরের মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে চাঁদপুরগামী লঞ্চে উঠতে সকালে সদরঘাটে এসেছেন ফুলজান বেগম। তিনি ধর্মঘটের ব্যাপারে জানতেন না। ফুলজান বেগম বলেন, ‘সকাল আটটার দিকে টার্মিনালে এসে দেখি লঞ্চ বন্ধ। অনেকক্ষণ অপেক্ষা করলাম। লঞ্চের লোকজনও বলছেন না, কখন লঞ্চ ছাড়বে। ভাবছি বাসে চাঁদপুর চলে যাব।’গতকাল রাতে মুন্সিগঞ্জ থেকে ঢাকার বাদামতলী ফলের বাজারে ফল কিনতে এসেছিলেন ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম। তিনি নিয়মিত এই বাজার থেকে ফল কিনে লঞ্চে মুন্সিগঞ্জ যান। তবে হঠাৎ করে ধর্মঘটে তিনি বিপাকে পড়েছেন। সিরাজুল বলেন, ‘মুন্সিগঞ্জ যাব। সকালে এসে দেখি লঞ্চ চলাচল বন্ধ। তবু মালামাল নিয়ে ঘাটে বসে ছিলাম। এখন বিকল্প উপায়ে যেতে হবে।’বেতন বৃদ্ধিসহ ১০ দফা দাবিতে নৌযান শ্রমিকেরা ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন। শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তাঁরা ধর্মঘট চালিয়ে যাবেন। বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মো. শাহ আলম বলেন, আমাদের দাবি–দাওয়া নিয়ে একাধিকবার নৌ মালিক নেতাদের সঙ্গে বসেছি। তাঁরা শুধু আমাদের আশ্বাস দিয়েছে, কিন্তু আজ পর্যন্ত আমাদের দাবি–দাওয়া পূরণ করেনি। দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আমাদের ধর্মঘট চলবে।’বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল (যাত্রী পরিবহন) সংস্থার সদস্য ও লঞ্চমালিক গাজী সালাউদ্দিন বলেন, নৌযান শ্রমিকদের দাবির বিষয়ে লঞ্চ মালিক সমিতির সঙ্গে শ্রমিক নেতাদের একাধিকবার বৈঠক হয়েছে। এ নিয়ে লঞ্চমালিকপক্ষ আলাপ-আলোচনা করেছে। এর আগের বৈঠকে শ্রমিক নেতারা জানিয়েছিলেন, আলাপ- আলোচনা করে তাঁরা পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাবেন। কিন্তু হঠাৎ করে গতকাল দিবাগত রাত থেকে মালিক সমিতিকে না জানিয়ে শ্রমিকেরা ধর্মঘট ডেকেছেন বলে দাবি করেন তিনি। যাত্রীদের জিম্মি করে দাবি আদায়ের আন্দোলন করা ঠিক না। বিষয়টি আলাপ–আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করা যায়। আজ বিকেল চারটার দিকে লঞ্চের মালিকপক্ষ এ বিষয়ে বৈঠক করবে বলে জানিয়েছেন। বিআইডব্লিউটিএর নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ঢাকা নদীবন্দরের যুগ্ম পরিচালক মো. শহিদুল্লাহ বলেন, নৌযান শ্রমিকেরা ১০ দফা দাবিতে ধর্মঘট ডেকেছেন। এতে ঢাকা নদীবন্দরসহ সারা দেশে যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল বন্ধ হয়ে আছে। যাত্রীদের দুর্ভোগের বিষয়টি বিবেচনা করে দ্রুত এ সমস্যা সমাধানের জন্য লঞ্চ মালিক ও শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে।#

bdccrimebarta