হরিরামপুরে সিএনজি স্ট্যান্ডে চাঁদাবাজির পায়তারা হাতাহাতি - বিডিসি ক্রাইম বার্তা
ArabicBengaliEnglishHindi

BD IT HOST

হরিরামপুরে সিএনজি স্ট্যান্ডে চাঁদাবাজির পায়তারা হাতাহাতি


bdccrimebarta প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২৩, ২০২৩, ৫:০৪ অপরাহ্ন / ৩৬
হরিরামপুরে সিএনজি স্ট্যান্ডে চাঁদাবাজির পায়তারা হাতাহাতি

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার ঝিটকা সিএনজি স্ট্যান্ডে চাঁদাবাজির পায়তারায় হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। জানা যায়, সোমবার (২৩ জানুয়ারী) সকাল সাড়ে দশটায় স্ট্যান্ডে জাতীয় শ্রমিক লীগের হরিরামপুর উপজেলা শাখার এক নং যুগ্ম আহবায়ক মালেক মন্ডলের নির্দেশে আহবায়ক কমিটির সদস্য মো. মজিবর রহমান চাঁদা আদায় করতে আসলে সিএনজি চালকদের সাথে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ঝিটকা সিএনজি স্ট্যান্ডের সুপার ভাইজার শাহীন বলেন, শ্রমিক লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য মো. মজিবর আজ সকালে আমার কাছে চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে আমার উপর চড়াও হয় মজিবর। সুপার ভাইজার থাকতে হলে প্রতিদিন চাঁদা দিতে হবে, এটা শ্রমিকলীগের আহবায়ক ও এক নং যুগ্ম আহবায়কের নির্দেশ বলে দাবী করেন মজিবর। এসময় মালিক সমিতির সভাপতি সোবহান এগিয়ে এলে তার উপর হাত তুলে মজিবর। মালিক সমিতির সভাপতি সোবহান মিয়া বলেন, কিছু দিন আগে মানিকগঞ্জ জেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি বাবুল সরকার ও সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান স্বাক্ষরিত হরিরামপুর উপজেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক ইউসুফ দেওয়ান ও ১ নং যুগ্ম আহ্বায়ক মালেক মন্ডলকে ঘোষনা করে। তাদের স্বাক্ষরে গত ৩১ ডিসেম্বর ২০২২ তারিখে ঝিটকা বাজার সিএনজি ষ্ট্যান্ডে পরিচালনা কমিটি দেন যাহা জাতীয় শ্রমিক লীগের গঠনতন্ত্র পরিপন্থি। তাদের নেতৃত্বে প্রত্যেক সিএনজি হতে চাঁদা আদায়ের নির্দেশ দেন, সে মোতাবেক চাঁদা আদায়ের জন্য পরিচালনা কমিটির সভাপতি সেকেন্দার, সহ সভাপতি লাভলু, কোষাধ্যক্ষ মজিবর সিএনজি স্ট্যান্ডের সুপারভাইজার শাহীন কে সিএনজি ড্রাইভারের নিকট হতে শ্রমিক লীগের নামে চাঁদা আদায় করতে বলে ড্রাইভাররা শ্রমিক লীগকে চাঁদা দিতে না চাইলে তাদের সাথে রাগারাগি করে। আমি বাধা দিলে মজিবর আমাকে মারধর করে। এ বিষয়ে শ্রমিকলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য মো. মজিবর রহমান বলেন, সিএনজি মালিক সমিতির নামে প্রত্যেক সিএনজি থেকে তারা প্রতিদিন চাঁদা আদায় করে। আমি শ্রমিকদের পক্ষ নিয়ে প্রতিবাদ করতে গিয়েছিলাম। হরিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)সৈয়দ মিজানুর ইসলাম বলেন, প্রত্যেক স্ট্যান্ডে চাঁদা আদায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।#

bdccrimebarta