• শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৭:৫৭ পূর্বাহ্ন

ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট পুলিশের হেফাজতে সেই ঝুমন দাশ

Reporter Name / ১৪৪ Time View
Update : মঙ্গলবার, ৩০ আগস্ট, ২০২২

শাল্লা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ- সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার আলোচিত নয়াগাঁও গ্রামের ঝুমন দাশ আপনকে শাল্লা থানার পুলিশ ধরে নিয়ে যায়।৷ আজ (৩০ আগস্ট) দুপুরে তার গ্রামের বাড়ি থেকে থানায় নেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে ঝুমনের স্ত্রী মুঠোফোনে বলেন, হঠাৎ করে আমার স্বামীকে ৪-৫ জন পুলিশ ধরেন। বিষয় কি আমার স্বামীকে আপনার নিয়ে যাচ্ছেন কেন জানতে চাইলে, তখন পুলিশ বলেন জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাচ্ছি। প্রতিত্তোরে আমি বললাম আমাদের একটা আলাদা ঘর আছে এখানে আপনার জিজ্ঞাসাবাদ করার কথা বললে তারা কোন কথা বলেন নি। পুলিশ যাওয়ার ১ ঘন্টা পরেই আমিও থানায় যাই এবং ধরে নিয়ে আসার বিষয়ে জানতে চাইলে উনারা বলেন একটা ফেইসবুকে পোস্ট দিছে। এর জন্য আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করব৷ তবে কোন হ্যান্ডকাপ না লাগিয়ে ধরাও না ছাড়াও না এমন ভাবে একটা আলাদা রুমে রাখছে।

এ বিষয়ে শাল্লা থানার অফিসার ইনচার্জ মুঠোফোনে বলেন, গত ২৮ তারিখে নতুন করে একটা ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিছে। স্ট্যাটাসটা কি জানতে চাইলে তিনি বলেন, একটা মন্দিরের আর একটা মসজিদের দান বাক্সের ছবি দিয়া ভন্ডামি টন্ডামি লেখায় একটু উত্তেজনা বিরাজ করছে তাই আমরা ঝুমনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসছি। ঝুমনকে ছেড়ে দেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে, অফিসার ইনচার্জ জানান কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে যা হয় আর কি।

উল্লেখ্য ঝুমন দাশ আপন ২০২১ সালের ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকীর দিনে মামুনুল হককে নিয়ে ফেইসবুক স্ট্যাটাস দিলে ডিজিটাল আইনে মামলায় প্রায় ৭ মাস জেলও খাটেন। ঐ স্ট্যাটাসের জেরে মামুনুল হক পন্থীরা নয়াগাঁওয়ে বিধ্বংসী হামলা চালিয়ে ৮৮ বাড়িঘর ও কয়েকটি মন্দির ভাংচুর করে।#

Please Share This Post In Your Social Media


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category