1. mahadihasaninc@gmail.com : bdccrimebarta :
যুদ্ধের ডামাডোলে রমরমা অস্ত্র বাণিজ্য যুক্তরাষ্ট্রের - বিডিসি ক্রাইম বার্তা

রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৪:২০ অপরাহ্ন

News Headline :
বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটি’র নবনির্বাচিত কমিটির কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর নেটওয়ার্কিং বাংলাদেশের উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পেইন রংপুরে রিপোর্টের কথা বলে ডেকে সাংবাদিককে হত্যা চেষ্টা ঢাকায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একই পরিবারের পাঁচজনের মৃত্যু কলেজছাত্র হত্যায় সংঘর্ষ : তিনশ জনের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেপ্তার ১৪ বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ড: উদ্ধার অভিযানে র‍্যাবের সাহসী ভূমিকা পালন টঙ্গীবাড়ীতে কবর থেকে আওয়ামী লীগ নেতার লাশ উত্তোলন মুন্সীগঞ্জে আলোচিত জিল্লু হত্যার ৪ আসামি কারাগারে জামিনে ৫ অভিনব কৌশলে চুরি ডাকাতি ছিনতাই দুই মাসে ১৭ ঘটনা কুমিল্লা আঃলীগ অফিস থেকে চালাচ্ছেন মেয়ের নির্বাচনীয় প্রচারণার: তানিম
যুদ্ধের ডামাডোলে রমরমা অস্ত্র বাণিজ্য যুক্তরাষ্ট্রের

যুদ্ধের ডামাডোলে রমরমা অস্ত্র বাণিজ্য যুক্তরাষ্ট্রের

অনলাইন  ডেস্ক: ২০২৩ সালে বিদেশি সরকারগুলোর কাছে যুক্তরাষ্ট্রের সরঞ্জাম বিক্রি ১৬ শতাংশ বেড়ে রেকর্ড ২৩৮ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে। সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এই তথ্য জানিয়েছে। এই পরিসংখ্যান লকহিড মার্টিন, জেনারেল ডায়নামিক্স এবং নর্থরোপ গ্রুম্যানের মতো সংস্থাগুলোর আরও শক্তিশালী হওয়ার প্রমাণ দেয়। এই সংস্থাগুলোর শেয়ার মূল্য বিশ্বব্যাপী ক্রমবর্ধমান অস্থিতিশীলতার মধ্যে বাড়বে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। রয়টার্সের এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, অস্ত্র বিক্রি ও হস্তান্তরকে আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক নিরাপত্তার জন্য সম্ভাব্য দীর্ঘমেয়াদী প্রভাবসহ যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রনীতির গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার হিসেবে দেখা হয়।

২০২৩ সালে অনুমোদিত বিক্রয়গুলোর মধ্যে পোল্যান্ডের কাছে ১০ বিলিয়ন ডলার মূল্যের হাই মোবিলিটি আর্টিলারি রকেট সিস্টেম (এইচআইএমএআরএস), জার্মানিতে ২ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলার মূল্যের এআইএম-১২০ সি-৮ অ্যাডভান্সড মিডিয়াম-রেঞ্জ এয়ার-টু-এয়ার মিসাইল (এএমআরএএএম) এবং ইউক্রেনকে দেওয়া ন্যাশনাল অ্যাডভান্সড সারফেস টু এয়ার মিসাইল সিস্টেমস (এনএএনএএমএস) ছিল। লকহিড হাইমার্স তৈরি করে এবং আরটিএক্স এএমআরএএএম তৈরি করে । আরটিএক্স পূর্বে রায়থিয়ন নামে পরিচিত ছিল। আরটিএক্স এবং নরওয়ের কংসবার্গ নাসামস তৈরি করে।

লকহিড মার্টিন এবং জেনারেল ডায়নামিকস আশা করছে, কয়েক হাজার রাউন্ড আর্টিলারি, শত শত প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র ইন্টারসেপ্টরের জন্য থাকা অর্ডার এবং সাঁজোয়া যানের অর্ডার আগামী ত্রৈমাসিকে তাদের বিক্রয়ের পরিমাণকে আরও বৃদ্ধি করবে।

বিদেশি সরকারগুলোর যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিগুলোর কাছ থেকে অস্ত্র কেনার দুটি প্রধান উপায় রয়েছেঃ সরাসরি বাণিজ্যিক বিক্রয়, এতে একটি কোম্পানির সঙ্গে আলোচনা করা হয়। আরেকটি হলো বিদেশি সামরিক বিক্রয় যাতে সরকার সাধারণত রাজধানীতে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের প্রতিরক্ষা বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে। এ দুটি ক্ষেত্রেই যুক্তরাষ্ট্র সরকারের অনুমোদন প্রয়োজন।

যুক্তরাষ্ট্রের সরাসরি সামরিক বিক্রয় ২০২২ অর্থবছরে ১৫৩.৬ বিলিয়ন ডলার থেকে ২০২৩ অর্থবছরে ১৫৭.৫ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত হয়েছে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের মাধ্যমে বিক্রয় আগের বছরের ৫১.৯ বিলিয়ন ডলার থেকে ২০২৩ সালে ৮০.৯ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত হয়েছে।

Please Share This Post In Your Social Media


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2023 bdccrimebarta.com