1. mahadihasaninc@gmail.com : bdccrimebarta :
শ্রীবরদীতে অটোরিক্সা চালককে মারধর; প্রতিবাদে মানববন্ধন - বিডিসি ক্রাইম বার্তা

রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৩:৪৬ অপরাহ্ন

News Headline :
বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটি’র নবনির্বাচিত কমিটির কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর নেটওয়ার্কিং বাংলাদেশের উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পেইন রংপুরে রিপোর্টের কথা বলে ডেকে সাংবাদিককে হত্যা চেষ্টা ঢাকায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একই পরিবারের পাঁচজনের মৃত্যু কলেজছাত্র হত্যায় সংঘর্ষ : তিনশ জনের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেপ্তার ১৪ বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ড: উদ্ধার অভিযানে র‍্যাবের সাহসী ভূমিকা পালন টঙ্গীবাড়ীতে কবর থেকে আওয়ামী লীগ নেতার লাশ উত্তোলন মুন্সীগঞ্জে আলোচিত জিল্লু হত্যার ৪ আসামি কারাগারে জামিনে ৫ অভিনব কৌশলে চুরি ডাকাতি ছিনতাই দুই মাসে ১৭ ঘটনা কুমিল্লা আঃলীগ অফিস থেকে চালাচ্ছেন মেয়ের নির্বাচনীয় প্রচারণার: তানিম
শ্রীবরদীতে অটোরিক্সা চালককে মারধর; প্রতিবাদে মানববন্ধন

শ্রীবরদীতে অটোরিক্সা চালককে মারধর; প্রতিবাদে মানববন্ধন

মাসুদুর রহমানঃ শেরপুরের শ্রীবরদীতে দুই অটোরিক্সা চালকের ওপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (১৪ জানুয়রি ) দুপুরে হামলাকারী ও চাঁবাজদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে পৌর শহরের চার রস্তা মোড়ে বিক্ষোভ মিছিল শেষে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

অটোরিক্সা চালকদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে অবৈধভাবে চাঁদা আদায় বন্ধের দাবি জানিয়ে বক্তব্য দেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের পৌর শাখার আহবায়ক মো,রুবেল মিয়াসহ অটোরিক্সা চালকরা।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবা (১১ জানুয়ারি) অটোরিক্সা চালক শাজাহান ও আকরাম হোসেনের সাথে পৌর শহরের বাসস্টানে বিল্লাল হোসেনের সাথে চাঁদা নিয়ে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে অটোরিক্সার চাবী কেড়ে নিলে বিল্লাল হোসেন তাদের ওপর হামলা করে। এতে গুরুতর আহত হয় ওই দুই অটোরিক্সা চালক।

পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে শ্রীবরদী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত ডাক্তার আকরাম হোসেনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। আহতরা এখনো চিকিৎসাধীন।

অটোরিক্সা চালক লাল মিয়া বলেন, আমরা গরীব অসহায় মানুষ আমরা প্রতিদিন অটো রিক্সা চালিয়ে আমাদের জীবন চালাই, আমাদের প্রতিদিনই চাঁদা দিতে হয় আর চাঁদা না দিলেই মারধর করে স্ট্যান্ডের লোকেরা । আমরা চাঁদাবাজদের হাত থেকে রক্ষা চাই।

আরেক অটোরিক্সা চালক আবদুল করিম বলেন, প্রতিদিন আমাদের কাছে ১০ টাকা করে নেই আবার মাসিক তাদেরকে দুই থেকে তিনশ টাকা দিতে হয়। আমরা অটো চালিয়ে কয় টাকা ইনকাম করি? এভাবে চাদা দিলে আমাদের সংসার চালাবো কেমনে। আমরা এ চাঁদাবাজদের বিচার চাই। আমরা যাতে অবাধে রাস্তায় গাড়ি চালাতে পারি প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে, অভিযুক্ত বিল্লাল হোসেন মারধরের কথা অস্বীকার করে বলেন, আমি স্ট্যান্ডের টাকা চাওয়ায় অটো চালক ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে প্রথমে আঘাত করে। পরে উপস্থিত লোকজনের সাথে হাতাহাতি হয়। কার আগাতে তারা আহত হয়েছে এটা আমি বলতে পারছিনা।

Please Share This Post In Your Social Media


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2023 bdccrimebarta.com