স্বামী ড্রাইভার - স্ত্রী সন্তান যাত্রী- পেশা চুরি - বিডিসি ক্রাইম বার্তা
ArabicBengaliEnglishHindi

BD IT HOST

স্বামী ড্রাইভার – স্ত্রী সন্তান যাত্রী- পেশা চুরি


bdccrimebarta প্রকাশের সময় : অগাস্ট ২৯, ২০২২, ৪:৩১ পূর্বাহ্ন / ৯১
স্বামী ড্রাইভার – স্ত্রী সন্তান যাত্রী- পেশা চুরি

শফিকুল ইসলাম শফিক, নারায়ণগঞ্জ থেকেঃ- প্রথমে মাইক্রোবাস ভাড়া করা তারপর স্বামী চালক আর স্ত্রী- সন্তান যাত্রী-গন্তব্য বিভিন্ন মার্কেট পেশা কাস্টমার সেজে স্বর্ণালঙ্কার চুরি করা। তারই ধারাবাহিকতায় ২৮ আগস্ট রবিবার বিকাল আনুমানিক ৪ ঘটিকার সময় নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় পাগলা বাজার এ- গনি ম্যানসন মা কালী জুয়েলার্স রাম গোপালের দোকানে একজন মহিলা ও একটি মেয়ে প্রবেশ করে স্বর্ণের অলংকার গলার চেইন দেখতে চাইলে দেখতে দেওয়া হয় কয়েকটি চেইন দেখতে দেখতে দোকানদারের চোখ ফাঁকি দিয়ে ৬ আনা ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন মহিলার সাথে থাকা পাসব্যাগে ডুকিয়ে পছন্দ না হওয়ার কথা বলে চলে যায়।

অল্প কিছুক্ষণ পরেই দোকানী একটি চেইন খোঁজে না পেয়ে চোর চোর বলে চিৎকার করলে মার্কেটের লোকজন মহিলাটিকে খুঁজতে থাকে অনেক খোঁজাখুঁজির পরে গাড়িটি খুঁজে পেলেও মহিলা পালিয়ে যায়। পরে গাড়িসহ ড্রাইভার ও গাড়িতে থাকা ড্রাইভার এর ৫ বছরের একটি ছেলেসহ আটক করে পাগলা বাজার ব্যবসায়ী বহুমুখী সমবায় সমিতির অফিসে নিয়ে আসলে জিজ্ঞাসাবাদে ড্রাইভার প্রথম অস্বীকার করলেও তার সাথে থাকা পাঁচ বছরের শিশু বাচ্চাটি বলে দেয় তার মা ও বোনের কথা এবং সিসিটিভি ফুটেজ দেখানো হলে বিষয়টি স্বীকার করে তার মেয়েকে ফোন করলে তার মেয়ে ওই বিষয়টি স্বীকার করে এবং গাড়ির টুল বক্সে রেখেছে বলে জানায় থাকে। তার কথা অনুযায়ী গাড়ী তল্লাশি করে চেইন পাওয়া না গেলে ও কিছু আলামত পাওয়া যায় যার দ্বারা বুঝতে আর বাকি রইল না যে চুরিই একমাত্র তাদের পেশা।

আলামত হিসেবে গাড়িতে পাওয়া গেল কয়েকটি পাস ব্যাগ ৮ -থেকে ১০ বোরখা ও স্বর্ণ ক্রয় বিক্রয়ের কয়েকটি মেমো ( রিসিট) পরে চুরি হওয়া চেইন অথবা সমমূল্যের টাকা দিলে তাকে ছেড়ে দেওয়ার কথা বললে আটকৃত ড্রাইভার তার স্ত্রীর সাথে কথা বললে বিকাশের মাধ্যমে ২৫ হাজার টাকা পাঠায় তাকে ছেড়ে দেওয়া শর্তে।

পরবর্তীতে পাগলা বাজার ব্যবসায়ী বহুমুখী সমবায় সমিতির সভাপতি শাহ আলম গাজী টেনু, সহ-সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক শিকদার মাহবুবুর রহমান, কোষাধক্ষ্য জাহিদ হাসান বেলাল সহ কমিটির সদস্যবৃন্দ ও ব্যবসায়ীদের উপস্থিতিতে ফতুল্লা থানায় ফোন করলে ফতুল্লা থানা পুলিশের এসআই সাইফুল সহ সঙ্গীও ফোর্স ঘটনাস্থলে আসলে বিকাশে পাঠানোর টাকা গাড়ি ও গাড়িতে পাওয়া আলামত সহ ড্রাইভার ও তার পাঁচ বছরের ছেলেকে পুলিশের সোপর্দ করা হয়। আটককৃত ড্রাইভার মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান থানার অন্তর্গত ইসলামপুর গ্রামের আজিজ মোল্লার ছেলে জুয়েল মোল্লা।#

bdccrimebarta