সুবর্ণচরে প্রধান সড়কে ছিনতাই ৬ লক্ষ টাকা লুট আহত ২ - বিডিসি ক্রাইম বার্তা
ArabicBengaliEnglishHindi

BD IT HOST

সুবর্ণচরে প্রধান সড়কে ছিনতাই ৬ লক্ষ টাকা লুট আহত ২


bdccrimebarta প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৫, ২০২২, ৩:৫১ অপরাহ্ন / ৪২
সুবর্ণচরে প্রধান সড়কে ছিনতাই ৬ লক্ষ টাকা লুট আহত ২

আহসান হাবীব, স্টাফ রিপোর্টারঃ– নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার প্রধান সড়কে দূধর্ষ ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে।এ ঘটনায় ছিনতাইকারীরা নগদ ৬ লক্ষ টাকা লুট করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে, উপজেলার চরজুবিলী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের তনু সওদাগরের ছেলে মোঃ ফারুক (৪০) ও ৯ নং ওয়ার্ড চরবাগ্যা গ্রামের হাজী রফিক উল্যার পুত্র সাহাব উদ্দিন ( ৫০) নামে দুইজন আহত হয়েছেন। আহতরা চরজব্বর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) দুপুর ২টা ৩০ মিনিটের দিকে মাইজদী – সুবর্ণচরের প্রধান সড়ক আব্দুল্লাহ মিয়ার হাটের উত্তর পাশে চাঁন বাড়ির কেল্লা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। আহত ভুক্তভোগী ফারুক ও সাহাব উদ্দিন বলেন, সকাল ১০ টাই চরজুবিলী ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নং ওয়ার্ডের মেম্বার আক্তার উদ্দিন শাহীনের পাওনা টাকা আনার জন্য নোয়াখালী মাইজদী শহরে ঠিকাদার রাজিব এবং নিজামের কাছে যান তারা, রাজিব তাদেরকে নগদ ৪ লক্ষ টাকা দেন, এবং নিজাম কন্টেকটার ২ লক্ষ টাকার এনসিসি ব্যাংকের চেক প্রদান করেন, (চেক নাম্বার M 4339942) চেকের ২ লক্ষ টাকা উত্তোলন করে মোট ৬ লক্ষ টাকা নিয়ে সুবর্ণচরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন তারা, আসার পথে আব্দুল্লাহ মিয়ার হাটের উত্তর পাশে চাঁন বাড়ির কেল্লা নামক স্থানে আনুমানিক ২ টা ৩০ মিনিটের সময় পৌঁছলে ৪/৫ টি মোটরসাইকেল তাদের গতিরোধ করে এলোপাতাড়ি মারধর করে সাথে থাকা ৬ লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এসময় তারা চরজুবিলী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের মৃত সামছুল হকের পুত্র রিয়াজ কন্টেকটারকে চিনতে পান, বাকিদেরকে চিনতে পারেননি, পরে একটি কালো রংয়ের মাইক্রোবাসে উঠে রিয়াজ কন্টেকটার পালিয়ে যায়, অন্যরা মোটরসাইকেল নিয়ে চলে যায়।স্থানীয়রা চরজব্বর থানায় খবর দিলে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদেরকে উদ্ধার করে চরজব্বর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করেন। আক্তার উদ্দিন শাহীন মেম্বার বলেন, রিয়াজ কন্টেকটার তার ভগ্নীপতি হোন, বিগত কয়েক মাস যাবত তার বোনের সাথে পারিবারিক কলহ চলে আসছিলো, পারিবারিক কলহের ঘটনার প্রবাদ করায় পর্ব পরিকল্পিত ভাবে তার লোকজনের উপর হামলা ও নগদ ৬ লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে তিনি দাবী করেন। প্রত্যক্ষদর্শী আনচার উল্লা চাঁদ ও লেদু সর্দার জানান, তারা সোনাপুর যাওয়ার পথে চাঁন বাড়ির কেল্লা নামক স্থানে ফারুক এবং সাহাব উদ্দিনকে আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে চরজব্বর থানায় ফোন করলে থানা পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করে।অভিযুক্ত রিয়াজ কন্টেকটার বলেন, এ বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না, দুপুর আড়াইটার সময় তিনি মাইজদী ডিবি অফিসে ছিলেন। চরজব্বর থানার এস আই সোহেল মাহমুদ জানান, ছিনতাইয়ের ঘটনা শুনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছি, লিখিত অভিযোগ ফেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।#

bdccrimebarta